আইফোন টেনের অ্যান্ড্রয়েড কপির দাম ১৫০ ডলার এবং নাম এস নাইন

লিয়াগু এস নাইন। ছবিঃ লিয়াগু

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে আইফোন টেন এবং অ্যান্ড্রয়েডের এক অন্যরকম হাইব্রিড ফোন দেখা গিয়েছে। কেউ যদি আইফোন টেনের নচ পছন্দ করে থাকেন এবং অ্যান্ড্রয়েডে তা কমদামে পেতে চান তাহলে লিয়াগুর নতুন ফোনটি দেখতে পারেন। সাথে মডেল নাম্বার হিসেবে এস নাইন নামটিও মন্দ হবে না। অনেকটা এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো।

লিয়াগু অবশ্য কোন রাখঢাক রাখেনি “ডিসপ্লে নচ”কে তাদের প্রধান ফিচার করতে। ফোনটিকে তারা বলছে “ওয়ার্ল্ডস ফার্স্ট অ্যান্ড্রয়েড নচ ডিসপ্লে স্মার্টফোন”। এটি বাদে তাদের আরেকটি হেডলাইন ফিচার হচ্ছে “ফেস অ্যাক্সেস” আনলক সিস্টেম, যেটা ০.১ সেকেন্ডেই ফোনকে আনলক  করতে পারবে। ফেস অ্যাক্সেস আইফোন থেকে নেয়া হলেও লিয়াগু অবশ্য বাদ দেয়নি পেছনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারকে।

তবে পেছনের ক্যামেরা সেটাপে হুবহু আইফোন টেনের কপি করা হয়েছে। এছাড়া স্বাভাবিকভাবেই এতে অনস্ক্রিন বাটনও থাকছে। তো ১৫০ ডলারে লিয়াগু দিচ্ছে ৫.৮৫” এইচডি+ আইপিএস নচ ডিসপ্লে, ৪ গিগাবাইট র‍্যাম, ১.৫ গিগাহার্জ গতিত অক্টাকোর প্রসেসর, ১৩+২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা ও ৩৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। মজার ব্যাপার হলো নচকে ফিচার বানাতে গিয়ে অ্যান্ড্রয়েডের নোটিফিকেশন বারের অনেক আইকন হারিয়ে যাচ্ছে। অনেকে এটাকে প্র্যাংক বলছে। তবে লিয়াগু যে সিরিয়াস তা অনলাইনে তাদের কার্যক্রম দেখলেই বোঝা যায়। ইউটিউবে তাদের চ্যানেলে এস নাইনের থ্রিডি রেন্ডারের একটি ভিডিও রয়েছে। এছাড়া তাদের ওয়েবসাইটে রয়েছে এস নাইন নিয়ে আলাদা ডিসকাশন ফোরাম।

 

সোর্সঃ  জিএসএমএরিনা



আপনার মন্তব্য

মন্তব্য করার পূর্বে মনে রাখুন এডিটোরিয়াল টিম সাইটে কমেন্ট মডারেশন করছে। কোন ধরনের মন্তব্য করা যাবেনা তা জানতে মন্তব্যের নীতিমালা দেখুন। আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রকাশ করা হবেনা।