ফেসবুক নিউজফিডে এখন থেকে পোস্ট করা যাবে থ্রিডি কন্টেন্ট

ফেসবুক থ্রিডি পোস্ট। ছবিঃ ফেসবুক

ফেসবুকের নিউজফিডে সম্প্রতি নতুন এক ফিচার যোগ হয়েছে। এখন থেকে সরাসরি থ্রিডি মডেল পোস্ট করা যাবে টাইমলাইনে। এর মাধ্যমে থ্রিডি মডেলটি সব সাইড থেকে ঘুরিয়ে দেখা যাবে।

ফেসবুকে প্রথমে মানুষ তাদের প্রিয়জনদের শেয়ার করতো শুধু টেক্সট। পরবর্তীতে ফেসবুকে আসে ছবি, ভিডিও এবং আরো ইমার্সিভ কন্টেন্ট – ৩৬০ ডিগ্রি ছবি, ভিডিও ইত্যাদি। এবার থ্রিডি পোস্টের মাধ্যমে মানুষজন সরাসরি ইন্টারঅ্যাক্ট করতে পারবে ডিজিটাল কোন অবজেক্টের সাথে।

ফেসবুকের নতুন এই সুবিধাটি এই মুহূর্তেই স্ক্রল এবং টাচের মাধ্যমে কাজ করার জন্য তৈরি। ফেসবুক বলছে এর মাধ্যমে ভবিষ্যতের একটি দরজাও খোলা হয়েছে – যেখানে মানুষ ইন্টারেস্টিং জিনিস আনবে এবং অগমেন্টেড রিয়ালিটি, ভার্চুয়াল রিয়ালিটি, মোবাইল ও ওয়েবের মাধ্যমে অভিজ্ঞতা নিবে। এসব হতে পারে পছন্দের গেম, বা মুভির কোন ক্যারেক্টার, আর্কিটেকচারাল মডেল বা মিউজিয়াম আর্টিফ্যাক্ট।

থ্রিডি পোস্ট

ফেসবুকে থ্রিডি পোস্ট করার জন্য জিএলটিএফ ২.০ ফাইল লাগবে। ফেসবুক স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে ওবিজে বা এফবিএক্স ফাইল তারা সাপোর্ট করে না। জিএলটিএফ ফাইল ফর্মেটকে ডাকা হয় “জেপেগ অব থ্রিডি” নামে। সবার কাছে থ্রিডি পৌঁছে দেয়ার জন্য তাই জেপেগ ফাইল ফর্মেটের মতোই কাজ করবে জিএলটিএফ। মাইক্রোসফটের পেইন্ট থ্রিডি কিংবা অফিসও সাপোর্ট করে জিএলটিএফ ফাইল ফর্মেট।

জিএলটিএফ ২.০ টেক্সচার, লাইটিং ও রিয়ালিস্টিক রেন্ডারিং টেকনিক সাপোর্ট করে। ফেসবুকের থ্রিডি পোস্ট ফটোগ্যামেট্রির জন্য আনলিট ওয়ার্কফ্লোও সাপোর্ট করে। ফেসবুকে পোস্ট করার জন্য অবশ্য বেশ কিছু শর্ত জুড়ে দিয়েছে ফেসবুক। ফাইলটি হতে হবে জিএলবি ফর্মেটে (এটা জিএলটিএফ ২.০ এর একটি প্যাকড বাইনারি ভার্সন), ফাইলসাইজ ৩ মেগাবাইটের উপরে হওয়া যাবে না এবং কোনপ্রকার অ্যানিমেশন এই মুহূর্তে সাপোর্ট করবে না।

যেভাবে পৌঁছাবে সবার কাছে

ফেসবুক ডেভেলপারদের জন্য নতুন গ্রাফ এপিআই বের করছে যেখানে থ্রিডি পোস্ট সাপোর্ট করবে। এর ফলে যেকোনো অ্যাপে সহজেই থ্রিডি পোস্ট কাজ করবে। এছাড়া ওয়েবসাইটের জন্য ফেসবুক আনছে ওপেন গ্রাফ ট্যাগ। এর বাইরে সনির কিছু ফ্ল্যাগশিপ এক্সপেরিয়া ফোনের থ্রিডি ক্রিয়েটর অ্যাপ দিয়ে তৈরি করা থ্রিডি মডেলও বর্তমানে পোস্ট করা যাবে। ওয়েবে শীঘ্রই গুগল পলি এবং অকুলাস মিডিয়াম ওয়েব গ্যালারি সাপোর্ট করবে ফেসবুকের থ্রিডি ফর্মেট।

থ্রিডি আর্টিস্টদের জন্য অবশ্য এখন মাত্র একটি প্রোগ্রাম সরাসরি ফেসবুক রেডি থ্রিডি ফাইল তৈরি করতে পারবে। আর সেটা হল ফাউন্ড্রির মোডো। মায়া, সিনেমা ফোরডি কিংবা ব্লেন্ডারের কথা সরাসরি না বললেও ফেসবুক অবশ্য বলেছে মোডোর বাইরে অন্য থ্রিডি প্রোগ্রামগুলোতেও সামনে ফেসবুক রেডি ফাইল তৈরি করা যাবে।

সোর্সঃ  ফেসবুক ডেভেলপার ব্লগ



আপনার মন্তব্য

মন্তব্য করার পূর্বে মনে রাখুন এডিটোরিয়াল টিম সাইটে কমেন্ট মডারেশন করছে। কোন ধরনের মন্তব্য করা যাবেনা তা জানতে মন্তব্যের নীতিমালা দেখুন। আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস প্রকাশ করা হবেনা।